কেন্দ্র সরকারের তরফ থেকে নতুন প্রকল্প ‘অগ্নিপথ’ (Agneepath) এর মাধ্যমে এবছর সেনাবাহিনীতে প্রচুর নিয়োগ করা হবে। কেন্দ্রীয় প্রতিরক্ষা মন্ত্রী রাজনাথ সিং এবিষয়ে বড়ো ঘোষণা করেছেন। কী এই প্রকল্প, কীভাবে নিয়োগ হবে, কারা নিয়োগ পাবেন, ইত্যাদি সমস্তরকম তথ্য নিয়ে নীচে আলোচনা করা হলো।

• অগ্নিপথ প্রকল্প কী?
‘অগ্নিপথ’ হলো কেন্দ্র সরকার প্রদত্ত একটি নতুন নিয়োগ পদ্ধতি, যার মাধ্যমে চারবছরের জন্য দেশের যুবকদের সেনাবাহিনীতে নিয়োগ করা হবে। যারা ‘অগ্নিপথ’ পদ্ধতির মাধ্যমে দেশের সেনাবাহিনীতে নিয়োগ পাবেন তাদের ‘অগ্নিবীর’ তকমা দেওয়া হবে। দেশের মিলিটারি আর্মি, বায়ুসেনা ও নৌবাহিনী তিনটি ক্ষেত্রেই এই নিয়োগ করা হবে।

• শুন্যপদ
এবছর প্রায় ৪০,০০০ জনকে ‘অগ্নিপথ’ এর মাধ্যমে সেনাবাহিনীতে নিয়োগ করা হবে।

• বেতন:-
শুরুতে প্রতি মাসে প্রায় ৩০,০০০ টাকা করে বেতন দেওয়া হবে। পরে বেতন সর্বোচ্চ প্রায় ৪০,০০০ টাকা অবধি পৌঁছাবে।

• অগ্নিপথ সম্পর্কিত কিছু গুরুত্বপূর্ণ তথ্য:-
(১) চারবছরের জন্য সেনাতে নিয়োগ করা হবে।

(২) চারবছরের মধ্যে আপনার ট্রেনিং পিরিয়ডও অন্তর্ভুক্ত থাকবে।

(৩) ২৫% ‘অগ্নিবীর’ কে চারবছর পরে স্থায়ী (Parmanent) সেনা হিসেবে নিয়োগ করা হবে। অর্থাৎ দেশের বাকি সেনাদের মতো তাদের আরও ১৫ বছর ডিউটি করতে হবে।

(৪) ৭৫% ‘অগ্নিবীর’ কে চার বছর পরে ‘সেবানিধি’ নামক সরকারের নতুন উদ্যোগের দ্বারা এককালীন ১১-১২ লক্ষ টাকা দেওয়া হবে ও সার্টিফিকেট প্রদান করা হবে। যদিও কোনোরকম পেনশনের সুবিধা তারা পাবেন না।

(৫) যদি কর্তব্যরত অবস্থায় কোনো ‘অগ্নিবীর’ শহীদ হন তাহলে তার বাকি সমস্ত বেতন তাঁর পরিবারকে দেওয়া হবে।

• কারা আবেদন করতে পারবেন?
দেশের সকল সাড়ে ১৭ বছর বয়স থেকে ২১ বছর বয়সী যুবক-যুবতীরা এই নিয়োগ পদ্ধতির জন্য আবেদন করতে পারবেন।

• কীভাবে নিয়োগ করা হবে?
‘অগ্নিপথ’ নিয়োগ পদ্ধতির মাধ্যমে মেধা ও শারীরিক দক্ষতা মূলক পরীক্ষার মাধ্যমে নিয়োগ করা হবে।

• কীভাবে আবেদন করবেন?
আবেদন পদ্ধতি এখনও শুরু হয়নি। সূত্রের খবর, এই পদ্ধতি ঘোষণা করার ৯০ দিনের মধ্যেই নিয়োগ সম্পন্ন করা হবে।