Apply-for-Ration-card-transfer-2022-from-home-in-just-two-minutes-know-the-process

বর্তমানে বিভিন্ন কারণবশত অনেক মানুষেরই রেশন কার্ড স্থানান্তরের প্রয়োজন হয়। মূলত, সদ্য বিবাহিতা মহিলা, ডিভোর্সী মহিলাদের নিজেদের রেশন কার্ড অন্য পরিবারের ট্রান্সফার করতে হয়। আগে এই রেশন কার্ড স্থানান্তর করার জন্য সাধারণ মানুষকে সরকারি অফিসে লাইনে দাঁড়িয়ে বহু কাগজপত্র জমা করতে হত। কিন্তু আধুনিক এই টেকনোলজির যুগে এই কাজটি যথেষ্ট সহজ হয়ে গিয়েছে। আজকের দিনে বাড়িতে বসেই অনলাইনে মাত্র ২ মিনিটেই রেশন কার্ড ট্রান্সফারের জন্য আবেদন করতে পারবেন। কীভাবে এই কাজ করতে হবে তা নীচে বর্ণনা করা হলো।

কীভাবে অনলাইনে রেশন কার্ড স্থানান্তরের জন্য আবেদন করবেন?

১. প্রথমে পশ্চিমবঙ্গ খাদ্য ও সরবরাহ দপ্তরের অফিসিয়াল ওয়েবসাইট food.wb.gov.in -এ যাবেন।
২. এবার সবার প্রথম অপশন CITIZEN’S HOME -এ যাবেন।
৩. তারপরে APPLY OF AN INDIVIDUAL FOR SHIFTING TO A NEW FAMILY (Form -14) -এই লিংকে ক্লিক করবেন।
৪. তারপরে নিজের রেশন কার্ড ক্যাটাগরি (Subsidized না non-Subsidized) তা সিলেক্ট করবেন এবং নীচে আপনার রেশন কার্ডের সাথে লিংক থাকা মোবাইল নম্বরটি লিখে GET OTP অপশনে ক্লিক করবেন।
৫. এবার আপনার মোবাইল নম্বরে একটি OTP চলে আসবে। সেটি লিখে SUBMIT অপশনে ক্লিক করবেন।
৬. তাহলে আপনার পরিবারের যতজন সদস্যের রেশন কার্ড রয়েছে তাদের নাম দেখাবে। যে সদস্যের রেশন কার্ড পরিবর্তন করতে চান তার নাম সিলেক্ট করে Next অপশনে যাবেন।
৭. এবার যে নতুন পরিবারে উক্ত ব্যক্তির রেশন কার্ড ট্রান্সফার করবেন সেই পরিবারের যে কোনো একটি সদস্যের রেশন কার্ড নম্বর ও ক্যাটাগরি লিখে SEARCH অপশনে ক্লিক করবেন।

ওয়েসিস স্কলারশিপ ২০২২ -এর জন্য আবেদন করুন এবং পেয়ে যান সর্বোচ্চ ১২,০০০ টাকা অবধি

৮. তাহলে নতুন পরিবারের সকল সদস্যের নাম স্ক্রিনে দেখতে পাবেন। সব ভালোমতো দেখে নিয়ে NEXT -এ ক্লিক করবেন।
৯. তারপরে নতুন ঠিকানা (যেমন – গ্রাম / শহরের নাম, পিন কোড, পোস্ট অফিস, পুলিশ স্টেশন) লিখে Communication Details -এ নিজের ফোন নম্বর দিতে পারেন।
১০. এরপরে নীচে Relation with HOF অপশনে আপনার পরিবারের প্রধানের সাথে কী সম্পর্ক রয়েছে (যেমন – শশুর, স্বামী, শাশুড়ি ইত্যাদি ) তা সিলেক্ট করবেন।
১১. তারপরে Reason for shifting to a new family অপশনে আপনি কোন কারণে নিজের রেশন কার্ড ট্রান্সফার করছেন তা সিলেক্ট করবেন (যেমন – বিবাহ, ডিভোর্স না অন্যান্য কোনো কারণ) এবং পাশে সাপোর্টিং ডকুমেন্ট আপলোড করে দেবেন (যেমন – বিয়ের ক্ষেত্রে ম্যারেজ সার্টিফিকেট, ডিভোর্সের ক্ষেত্রে ডিভোর্সের কাগজ ইত্যাদি ) এবং NEXT -এ ক্লিক করবেন।
১২. তারপরে Confirm your application লেখাটির নীচে terms -এ টিক দিয়ে SEND OTP অপশনে ক্লিক করবেন।
১৩. তাহলে আপনার পুরোনো পরিবারের যে মোবাইল নম্বরের সাথে আপনার রেশন কার্ড লিংক করা আছে সেটিতে একটি OTP আসবে। তা লিখে SUBMIT OTP অপশনে ক্লিক করলেই আপনার আবেদন সম্পন্ন হয়ে যাবে।

আপনি চাইলে এরপরে যে রেশন কার্ডটি ট্রান্সফারের জন্য আবেদন করলেন সেটির স্ট্যাটাসও চেক করতে পারেন। এরজন্য একই ওয়েবসাইট food.wb.gov.in -এ গিয়ে CITIZEN’S HOME অপশনে যেতে হবে। তারপরে CHECK RATION CARD APPLICATION STATUS অপশনে ক্লিক করে Select Form Type -এ Form 14 সিলেক্ট করবেন এবং তারপরে মোবাইল নম্বর ও ক্যাপচা কোডটি লিখে Search অপশনে ক্লিক করবেন। তাহলে নিজের আবেদনের স্ট্যাটাস দেখতে পাবেন। যদি স্ট্যাটাসে Approved দেখায় তাহলে বুঝবেন যে উক্ত ব্যক্তির / মহিলার রেশন কার্ডের স্থানান্তর (Transfer) সম্পন্ন হয়ে গিয়েছে। সাধারণত একটি রেশন কার্ড ট্রান্সফারের আবেদনের দু থেকে চার সপ্তাহের মধ্যে সেই কাজটি সম্পন্ন হয় এবং আপনি চাইলে একই ওয়েবসাইট থেকে উক্ত ব্যক্তির / মহিলার নতুন e-Ration card ডাউনলোড করে নিতে পারেন।

অফিসিয়াল ওয়েবসাইট – Link

এই রকম আরও নানান টেকনিক্যাল খবর পেতে আমাদের ওয়েবসাইটটি ফলো করুন এবং নীচের ডানদিকের টেলিগ্রাম আইকনে ক্লিক করে আজই জয়েন হন আমাদের টেলিগ্রাম চ্যানেলে