A-fabulous-electric-bike-has-come-in-the-market-Charge-it-once-and-it-will-run-120-km

আপনি কী ভালো কোনো বাইক কিনতে চাইছেন? তাহলে এই খবরটি আপনার জন্য যথেষ্ট গুরুত্বপূর্ণ। বর্তমানে দেশে জ্বালানির দাম প্রায় অগ্নিমূল্য। তাই আজকাল মোটরবাইকের মাধ্যমে যাতায়াত করা যথেষ্ট খরচসাপেক্ষ হয়ে গিয়েছে। সামান্য কয়েক কিলোমিটার যেতেই শতাধিক টাকার তেল লাগতে পারে। এমন পরিস্থিতিতে সবথেকে ভালো বিকল্প হলো ইলেকট্রিক বাইক বা স্কুটার (Electric Bike)। এরমাধ্যমে সহজেই কম খরচে গন্তব্যস্থলে পৌঁছে যেতে পারবেন। পাশাপাশি বৈদ্যুতিক যানবাহনই আগামীদিনের ভবিষ্যৎ। সাধারণ যানবাহনের তুলনায় ইলেকট্রিক বাইক, গাড়িতে প্রচুর সুবিধা রয়েছে।

• বৈদ্যুতিক যানবাহনের সুবিধা :-

(১) কোনোরকম পরিবেশ দূষণ হয় না। Eco Friendly Vehicle হিসেবে পরিচিত।

(২) খরচ তুলনামূলক কম। জ্বালানি কেনার জন্য বিপুল পরিমান অর্থ ব্যয় করতে হয় না।

(৩) সহজে চালানো যায়। পাশাপাশি বেশিরভাগ ইলেকট্রিক যানবাহনে হাই টেক প্রযুক্তির ব্যবস্থা রয়েছে।

আজকের এই প্রতিবেদনে এরকমই একটি দারুন ইলেকট্রিক বাইক সম্পর্কে আলোচনা করবো। এই মোটরবাইকটি কোন মডেলের, কত, দাম, কী কী স্পেশাল বৈশিষ্ট্য রয়েছে ইত্যাদি সমস্ত বিষয় নীচে ব্যাখা করা হলো।

রয়্যাল এনফিল্ড দিচ্ছে ২ লাখ টাকার বাইক মাত্র ২২ হাজার টাকায়, এই সুযোগ হাতছাড়া করবেন না

• ইলেকট্রিক বাইকটি কোন মডেলের ?
ভারতীয় বাজারে বর্তমানে কিছু ভালো ইলেকট্রিক বাইক রয়েছে। তবে আজ যেই বাইকটি সম্পর্কে আলোচনা করবো সেটিকে একদম পয়সা ওসুল প্রোডাক্ট বলা যেতে পারে। বর্তমানে দেশের অন্যতম জনপ্রিয় ও বিশ্বস্ত ব্র্যান্ড EVTRIC Motors, কোম্পানি সম্প্রতি তাদের নতুন আকর্ষণীয় বৈদ্যুতিক মোটরসাইকেল বাজারে এনেছে। বাইকটির মডেল হলো EVTRIC Rise; নতুন মডেল হওয়ার পাশাপাশি প্রচুর উন্নতমানের ফিয়েচার্স রয়েছে এই বাইকটিতে। লাল ও কালো দুটি রঙে এই বাইকটি উপলব্ধ রয়েছে। চলুন এবার জেনে নেওয়া যাক, চমকপ্রদ এই বাইকটির খুঁটিনাটি সম্পর্কে।

• EVTRIC Rise ইলেকট্রিক বাইকটির টেকনিকাল ফিয়েচার্স :-

ব্যাটারী–72v/40AH লিথিয়াম ব্যাটারী, চার্জার– 72V 10 Amp, মোটরপাওয়ার– 2000 W, বহন ক্ষমতা– 150 কেজি, গতিবেগ– 70 কিমি / ঘন্টা, রেঞ্জ– 100-120 কিমি (স্লো স্পীডে)

স্বল্প পুঁজিতে শুরু করুন টি-শার্ট প্রিন্টিং ব্যবসা, মাসে ইনকাল লক্ষাধিক

• EVTRIC Rise ইলেকট্রিক বাইকের স্পেশাল বৈশিষ্ট্য :-

(১) মাত্র একবার চার্জ দিলেই ১১০-১২০ কিমি পর্যন্ত চলবে এই বাইক।

(২) উন্নতমানের লিথিয়াম ব্যাটারী থাকায় এর মধ্যে চার্জ পাওয়ার বহুক্ষন অবধি থাকবে।

(৩) এই বৈদ্যুতিক মোটরসাইকেলটিতে চার্জ করতেও খুব কম সময় লাগে। মাত্র ৪ থেকে ৫ ঘন্টা।

(৪) বাইকটিতে ২০০০ ওয়াট ক্ষমতাসম্পন্ন হাই কোয়ালিটির BLDC মোটর রয়েছে।

(৫) বাইকটির সর্বোচ্চ স্পিড প্রায় ৭০ কিমি / ঘন্টা। ফলে তাড়া থাকলে কোনো জায়গায় সহজেই এই ইলেকট্রিক বাইকটির মাধ্যমে পৌঁছে যেতে পারবেন।

(৬) এই বাইকটির সামনে অত্যন্ত ভালো কোয়ালিটির LED হেডলাইট রয়েছে। এছাড়াও চালানোর সময় রানিং লাইটেরও ব্যবস্থা রয়েছে যা আপনাকে মোটরবাইকটি চালানোর সময় অনেক সাহায্য করবে।

আধার কার্ডে মোবাইল নাম্বার লিঙ্ক বা যে কোনো কাজ এবার হবে ঘরে বসেই, রাজ্য সরকারের নতুন উদ্যোগ

• কতো টাকা দাম এই বাইকটির?
EVTRIC Rise মডেলের এই মোটরবাইকটির বাজার দাম ১,৫৯,৯৯০ টাকা। আপনি চাইলে মাত্র ৫,০০০ টাকা ডাউন পেমেন্ট দিয়ে বাইকটি কিনতে পারেন। পরে প্রতি মাসে ইএমআই দিয়ে পুরো পেমেন্ট করার সুবিধা রয়েছে। ভারতে ২২ টি রাজ্যে ইতিমধ্যেই এই বাইকটি কেনার জন্য উপলব্ধ করা হয়েছে।

তাই পছন্দ হলে দেরী না করে আজই কিনে নিন এই নতুন বৈদ্যুতিক মোটরবাইকটি।

এইরকম আরও নানান নিত্যনতুন মডেলর বাইক সম্পর্কে আপডেট পেতে আমাদের ওয়েবসাইটটি ফলো করুন এবং নীচের ডানদিকের টেলিগ্রাম আইকনে ক্লিক করে আজই জয়েন হোন আমাদের টেলিগ্রাম চ্যানেলে