apply-for-rupashree-prakalpa

আজকে আপনাদের সাথে পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য সরকারের অত্যন্ত জনপ্রিয় একটি প্রকল্প তথা – রূপশ্রী প্রকল্প সম্পর্কে আলোচনা করবো। মেয়েদের বিবাহের সময় আর্থিক সহায়তা প্রদানের উদ্দেশ্যে এই প্রকল্পটি চালু করা হয়েছে। এখনও অবধি বহু মহিলা এই প্রকল্পের সুবিধা পেয়েছেন। নীচে রূপশ্রী প্রকল্প সংক্রান্ত যাবতীয় খুঁটিনাটি সম্পর্কে আলোচনা করা হলো।

রূপশ্রী প্রকল্প কী?

পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য সরকার কর্তৃক ২০১৮ সালে এই প্রকল্পটি চালু করা হয়। রূপশ্রী প্রকল্পের মাধ্যমে মেয়েদের বিবাহের সময় এককালীন ২৫,০০০ টাকা করে দেওয়া হয়।

কারা রূপশ্রী প্রকল্পে আবেদন করতে পারবেন?

১. আবেদনকারীকে পশ্চিমবঙ্গের বাসিন্দা হতে হবে।
২. কোনো মেয়ে তার বিবাহের প্রাক্কালে এই প্রকল্পের জন্য আবেদন করতে পারবেন।
৩. পাত্রীর বয়স নূন্যতম ১৮ বছর এবং পাত্রের বয়স নূন্যতম ২১ বছর হতে হবে।
৪. আবেদনকারীর পরিবারের বার্ষিক আয় দেড় লক্ষ টাকার মধ্যে হতে হবে।
৫. আবেদনকারী মহিলা তার প্রথম বিবাহের সময় এই প্রকল্পে আবেদন করতে পারবেন। পরবর্তীতে তিনি আবার বিয়ে করলে রূপশ্রী প্রকল্পে আবেদন করতে পারবেন না।

জয় জোহার ও তপশীলি বন্ধু প্রকল্পে আবেদন করুন এবং প্রতি মাসে ১,০০০ টাকা করে পেয়ে যান

রূপশ্রী প্রকল্পে আবেদন করতে কী কী লাগবে?

১. পাত্রী ও পাত্র উভয়েরই পাসপোর্ট সাইজ ছবি
২. পাত্রী ও পাত্র উভয়েরই বয়সের প্রমাণপত্র
(জন্ম সার্টিফিকেট / আধার কার্ড / ভোটার কার্ড / প্যান কার্ড ইত্যাদির মধ্যে যে কোনো একটির জেরক্স)
৩. বিবাহের কার্ড
৪. পরিবারের ইনকাম সার্টিফিকেট
৫. আবেদনকারী মহিলার ব্যাংকের পাসবুকের প্রথম পাতার জেরক্স

রূপশ্রী প্রকল্পের জন্য কীভাবে আবেদন করতে হয়?

১. রূপশ্রী প্রকল্পের জন্য অফলাইনে আবেদন করতে হয়। প্রথমে আপনার বিডিও অফিসে গিয়ে রূপশ্রী প্রকল্পের আবেদনের ফর্মটি সংগ্রহ করবেন। আপনি চাইলে নীচে দেওয়া লিংকে ক্লিক করেও রূপশ্রী প্রকল্পের আবেদনপত্রটি ডাউনলোড করতে পারেন।
২. আবেদন ফর্মটি সংগ্রহ করার পরে সেটি ভালো করে ফিল আপ করবেন এবং তার সাথে উপরোক্ত ডকুমেন্টগুলো অ্যাটাচ করবেন।
৩. এবার আপনার আবেদনপত্রটি বিডিও অফিসে গিয়ে জমা করবেন।

আবেদনপত্র জমা দেওয়ার পরে আপনি অনলাইনে নিজের আবেদনের স্ট্যাটাসও চেক করতে পারবেন। এর জন্য নীচের লিংকে ক্লিক করে Application ID ও Applicant Year (আবেদনের বছর) সিলেক্ট করে Submit অপশনে ক্লিক করবেন। তাহলেই আপনার আবেদনের স্ট্যাটাস দেখতে পারবেন। অধিকাংশ ক্ষেত্রে আবেদন করার এক মাসের মধ্যেই পাত্রীর ব্যাংক অ্যাকাউন্টে রূপশ্রী প্রকল্পের টাকা ঢুকে যায়।

আবেদনপত্র – লিংক

সরকারি প্রকল্প সম্পর্কিত এই রকম আরও নানান গুরুত্বপূর্ণ খবর পেতে আমাদের ওয়েবসাইটটি ফলো করুন এবং নীচের ডানদিকের টেলিগ্রাম আইকনে ক্লিক করে আজই জয়েন হন আমাদের টেলিগ্রাম চ্যানেলে