ব্যাংকিং

Personal Loan – টাকার দরকার খুব! কিভাবে অনলাইনে তাৎক্ষণিক ব্যাক্তিগত ঋণ পাবেন?

এখন থেকে টাকার প্রয়োজন হলেই Personal Loan তথা তাৎক্ষণিক ব্যাক্তিগত ঋণ দেওয়া হবে বিভিন্ন ব্যাংকের তরফে। সে আবার খুবই কম সুদে (Instant Loan Interest Rate) ও খুবই কম সময়ে সকলে এই ঋণ পাবেন দরকার হলেই। তবে, তার আগে পার্সোনাল লোন কি এবং কারা এই লোনটি পাওয়ার জন্য উপযুক্ত সেই বিষয়টি জানতে হবে সকলকে। আর যে কোন ধরণের ঋণ (Loan) নেওয়ার আগে আপনাদের এই সম্পর্কে সকল তথ্য ভালো করে জেনে নেওয়া উচিত আগের থেকেই যাতে পরবর্তী সময়ে কোন ধরণের সমস্যা না হয়।

Get Instant Personal Loan Online in India.

বর্তমানে দেশে ধনী, দরিদ্র অনেক ধরনের মানুষই বসবাস করে থাকেন। তবে কখনো সকলের ক্ষেত্রেই এমন পরিস্থিতি এসে যায় যখন তাদের হঠাৎ করেই অনেক টাকার দরকার পরে। এই সময় প্রায় সকলেই তাদের পরিচিত ব্যক্তিদের কাছে টাকা ধার করার কথা চিন্তা করেন। মূলত রোজগার করলেও অনেককেই টাকা ধার করতে হয় নানা প্রয়োজনে। সেই কারণেই বিভিন্ন ক্ষেত্রে ব্যাংক থেকে Personal Loan নিয়ে থাকেন অনেকে।

পার্সোনাল লোন কি?

কিন্তু এই Personal Loan নেওয়ার জন্য একটা নির্দিষ্ট প্রক্রিয়া আছে যা সম্পন্ন করতে খানিকটা সময় লেগে যায় গ্রাহকদের। কিন্তু হঠাৎ যদি এমন কোনো পরিস্থিতি আসে যখন গ্রাহকদের জরুরী ভিত্তিতে টাকা প্রয়োজন, তখন লোন পাবার ক্ষেত্রে সমস্যায় পড়ে যেতে হয় গ্রাহকদের। তবে গ্রাহকদের ইমার্জেন্সি অর্থের (Emergency Loan) প্রয়োজন হলে তাদের পার্সোনাল লোন দিয়ে থাকে ব্যাংক গুলো।

পার্সোনাল লোন কিভাবে নেব?

এই Personal Loan বা ব্যক্তিগত ঋণ হলো এক ধরনের সুরক্ষিত ঋণ দান প্রক্রিয়া। বিভিন্ন পাবলিক ব্যাংক এবং অন্যান্য আর্থিক প্রতিষ্ঠান গুলো এই পার্সোনাল লোন দিয়ে থাকে। এই লোনকে আবার কনজিউমার লোন বা গ্রাহক রিনুও বলা হয়ে থাকে। আমাদের দেশে ঋণ নেওয়ার জন্য সর্বনিম্ন বয়স হলো ২১ বছর এবং সর্বোচ্চ বয়স হলো ৬০ বছর। এর মধ্যবর্তী বয়সীরা পরিবারের বিভিন্ন ঘাটতি মেটাতে পার্সোনাল লোন নিয়ে থাকে।

কিভাবে অনলাইনে তাৎক্ষণিক ব্যাক্তিগত ঋণ পাবেন?

মূলত হঠাৎ করে কোনো কারণ বশত মোটা টাকার প্রয়োজন হলে সাধারণ মানুষ Personal Loan নিয়ে থাকেন। তবে সেক্ষেত্রে ব্যাংক থেকে লোন নিতে গেলে বেশ কিছু নিয়ম কানুন থাকে। কিন্তু স্টেট ব্যাংক অফ ইন্ডিয়ায় পার্সোনাল লোনের (SBI Personal Loan) জন্য যদি কেউ আবেদন করেন। তবে সেক্ষেত্রে আবেদনকারীর ইএমআই যেন তার নেট মাসিক আয়ের ৫০ শতাংশের বেশি না হয়।

স্টেট ব্যাংক ব্যাক্তিগত ঋণ

এর বেশি হলে এসবিআই এর তরফ থেকে সেই পার্সোনাল লোন বাতিল করে দেওয়া হয়। মূলত পার্সোনাল লোনের ইএমআই (Personal Loan EMI) হলো ঋণ পরিশোধ করার মেয়াদ শেষ না হওয়া পর্যন্ত প্রত্যেক মাসে অর্থ প্রদান করা। ইএমআই এর মধ্যেই পার্সোনাল লোনের আসল এবং সুদ দুটো জিনিসই থাকে। ঋণগ্রহীতাদের প্রত্যেক মাসেই এই টাকা দিয়ে যেতে হয়। যত দিন না পর্যন্ত পুরো লোনের টাকা শোধ হচ্ছে ততদিন ইএমআই দিতে হবে।

তাৎক্ষণিক ঋণ সুদের হার

পার্সোনাল লোনে ইএমআই (Personal Loan EMI) এর নিয়ম অনুযায়ী সুদসহ ব্যাংকে নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে মাসিক কিস্তিতে শোধ করতে হয়। ইএমআই পদ্ধতি দ্বারা পার্সোনাল লোন প্রতি মাসে কিস্তি হিসেবে ঋণ শোধ করতে হবে। এক্ষেত্রে প্রতিটি ব্যাংকে ইএমআই এমাউন্ট ভিন্ন ভিন্ন হয়ে থাকে। ঋণ দেওয়ার আগে ব্যাংক গুলো গ্রাহককে ঋণ শোধের জন্য ইএমআই (EMI Personal Loan) এমাউন্ট জানিয়ে দেবে।

কোন ব্যাংক সবচেয়ে দ্রুত পার্সোনাল লোন দেয়?

সেই অনুযায়ী গ্রাহককে কত পারসেন্ট সহ মাসিক কিস্তিতে টাকা মেটাতে হবে তা জানিয়ে দেওয়া হবে। এই পদ্ধতি দ্বারা Personal Loan শোধ করতে গ্রাহকদের সুবিধা হয়। একসঙ্গে সমস্ত টাকা শোধ করতে হয় না। এছাড়াও এই পদ্ধতিতে গ্রাহকের নেওয়া ঋণ এবং সুদের হার উভয়ই ধরে রাখে। এই পদ্ধতি প্রসেসিং হতে খুব কম সময় লাগে কারণ এই পদ্ধতিতে কাগজ পত্রের কাজ কর্ম অনেক কম। পার্সোনাল লোন বিশেষত ইএমআই পদ্ধতিতে শোধ করা হয়ে থাকে।

Online Personal Loan Apply Criteria

1) পার্সোনাল লোন কম পক্ষে যাদের বয়স ২১ বছর এবং সর্বোচ্চ বয়স যাদের ৬০ বছর তারা পার্সোনাল লোনের জন্য আবেদন করতে পারবে।
2) এই পার্সোনাল লোন কেবল মাত্র তাদেরকে দিয়ে থাকে যাদের নিজেদের আয় বেশি থাকে এবং যাদের ক্রেডিট স্কোর (Credit Score) ৭৫০ থেকে ৯৫০ পর্যন্ত হয়ে থাকে।

3) একটি নির্দিষ্ট পরিমাণ আবেদনকারী থাকা দরকার তা না হলে এই লোন পাওয়া যায় না।
4) যারা সরকারি কর্মচারী হয়ে থাকে তাদের খুব সহজে পার্সোনাল লোন দেওয়া হয়ে থাকে।
5) যদি আবেদনকারীর ক্রেডিট স্কোর বেশি হয়, তা হলে Personal Loan পাওয়ার সম্ভাবনা বেড়ে যায়।

পার্সোনাল লোনের জন্য আবেদন করুন

পার্সোনাল লোন বা ব্যক্তিগত লোন বিভিন্ন পাবলিক ব্যাংক গুলো এবং অন্যান্য আর্থিক সংস্থা গুলো সাধারণ মানুষের চাহিদা মেটানোর জন্য নির্দিষ্ট সুদের হারে নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে দিয়ে থাকে। প্রতিটি ব্যাংকে আলাদা আলাদা করে পরিমাণ টাকা ঋণ হিসেবে দেওয়া হয় এবং প্রতিটি ব্যাংকের শর্তাবলী ভিন্ন ধরনের হয়ে থাকে। বিভিন্ন ব্যাংকের পার্সোনাল লোনের টাকার পরিমান নিম্নরূপ।

কোন ব্যাংক পার্সোনাল লোন দিয়ে থাকে?

1) Bank of Maharastra – ২১ বছর বয়সি থেকে ৬০ বছর বয়সী ব্যক্তিদের পার্সোনাল লোন দিয়ে থাকে। এই ব্যাংক সর্বোচ্চ ১০ লাখ টাকা পর্যন্ত পার্সোনাল লোন দিয়ে থাকে।
2) Bajaj Finserv Instant Loan – ২৫ বছর বয়সী থেকে ৫৯ বছর বয়সী ব্যক্তিদের পার্সোনাল লোন দিয়ে থাকে। এই ব্যাংকে ঋণ হিসেবে সর্বোচ্চ পরিমাণ ১৫ লাখ টাকা দেওয়া হয়ে থাকে।

3) Axis Bank – ২১ বছর থেকে ৬০ বছর বয়সী ব্যক্তিদের ৫০ হাজার টাকা থেকে ১৫ লাখ টাকা পর্যন্ত পার্সোনাল লোন (AXIS Bank Loan) দিয়ে থাকে।
4) Canara Bank – ১৮ বছরের বেশি বয়সী ব্যক্তিদের সর্বোচ্চ পাঁচ লাখ টাকা পর্যন্ত পার্সোনাল ঋণ দিয়ে থাকে।
5) HDFC Bank – সর্বোচ্চ পরিমাণ ২৫ লক্ষ টাকা পর্যন্ত পার্সোনাল লোন (HDFC Loan) দিয়ে থাকে।

6) CITI Bank – ১৮ বছরের বেশি বয়সী ব্যক্তিদের ৩০ লক্ষ টাকা পর্যন্ত সর্বোচ্চ পরিমাণ পার্সোনাল লোন দিয়ে থাকে।
7) ICICI Bank – ২৩ বছর বয়সী থেকে ৫৮ বছর বয়সী ব্যক্তিদের সর্বোচ্চ পরিমাণ কুড়ি লক্ষ টাকা পর্যন্ত পার্সোনাল লোন (ICICI Loan) দিয়ে থাকে।
8) Punjab National Bank – ১৮ বছরের বেশি বয়সী ব্যক্তিদের ৫০০০০ টাকা থেকে ১০ লক্ষ টাকা পর্যন্ত পার্সোনাল লোন হিসেবে ঋণ (PNB Loan) দেওয়া হয়।

9) State Bank of India – ১৮ বছরের বেশি বয়সী ব্যক্তিদের ২৫ হাজার টাকা থেকে ১৫ লক্ষ টাকা পর্যন্ত পার্সোনাল লোন (SBI Loan) দেওয়া হয়।
10) IDBI Bank – ২১ বছর বয়সী থেকে ৬০ বছর বয়সী ব্যক্তিদের ৫০০০০ টাকা থেকে ১০ লক্ষ টাকা পর্যন্ত পার্সোনাল লোন দিয়ে থাকে।
11) IDFC Bank – ২৩ বছর থেকে ৬০ বছর বয়সী ব্যক্তিদের সর্বোচ্চ পরিমাণ ৪০ লক্ষ টাকা পর্যন্ত পার্সোনাল লোন দিয়ে থাকে।

12) Kotak Mahindra Bank – ২১ বছর বয়সি থেকে ৬২ বছর বয়সী ব্যক্তিদের ৩০ লক্ষ টাকা পর্যন্ত পার্সোনাল লোন দিয়ে থাকে।
13) YES Bank – ২২ বছর থেকে ৬০ বছর বয়সী ব্যক্তিদের ৫০ লক্ষ টাকা পর্যন্ত Personal Loan দিয়ে থাকে।
14) TATA Capital – ২১ বছর বয়সী থেকে ৫৮ বছর বয়সী ব্যক্তিদের কুড়ি লক্ষ টাকা পর্যন্ত লোন দিয়ে থাকে।
15) Union Bank of India – ১৮ বছরের বেশি বয়সী ব্যক্তিদের ১০ লক্ষ টাকা পর্যন্ত পার্সোনাল লোন হিসেবে ঋণ দিয়ে থাকে।

Indian Currency (ভারতীয় মুদ্রা)

ব্যাক্তিগত ঋণ নেওয়ার কিছু শর্ত

এক্ষেত্রে উল্লেখ্য, বর্তমানে কোনো ব্যাংক বা আর্থিক প্রতিষ্ঠান গুলো কোনো বিশেষ কারণ ছাড়া পার্সোনাল লোন দিতে চায় না। Personal Loan নেওয়ার ক্ষেত্রে লোন গ্রাহকের আর্থিক অবস্থা ব্যাংকে যাচাই করে থাকে মাসিক ইনকাম যাচাই করে তারপর লোন দিয়ে থাকে।

790 টাকা বিনিয়োগে লাখপতি! TATA Mutual Fund এ বিনিয়োগ আজই শুরু করে দিন

Personal Loan Online Apply

অনলাইন বা অফলাইনে খুব সহজেই পার্সোনাল লোনের এর জন্য আবেদন করতে পারবেন গ্রাহকেরা। গ্রাহক যদি সংশ্লিষ্ট ব্যাংক বা এনবিএফসি এর গ্রাহক হয়ে থাকেন, সেক্ষেত্রে সর্ব নিম্ন সুদের হারের জন্য কর্তৃপক্ষকে অনুরোধ করতে পারেন। প্রসঙ্গত, ক্রেডিট কার্ড থাকলে খুব সহজেই পার্সোনাল লোন পেয়ে থাকেন গ্রাহকরা তবে কার্ড ব্যবহারের উপর বিষয়টি নির্ভর করে।
Written by Sampriti Bose.

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button