ব্যাংকিং

Income Tax – আয়করে বিশেষ ছাড় পাবেন করদাতারা? গুরুত্বপূর্ণ ইঙ্গিত পাওয়া গেল।

লোকসভা ভোটের আগেই দেশের করদাতাদের (Income Tax) জন্য দারুন সুখবর দিতে চলেছে কেন্দ্রীয় সরকার। আসন্ন বাজেট অধিবেশনে কেন্দ্রীয় সরকারের তরফে করদাতাদের স্ট্যান্ডার্ড ডিডাকশনের সীমা বাড়ানো হতে চলেছে। সূএের খবর অনুযায়ী, মূলত বেতনভোগী করদাতাদের স্ট্যান্ডার্ড ডিডাকশন ১ লক্ষ টাকা করা হতে পারে বলে মনে করা হচ্ছে। বর্ষশেষে এই খবরে দারুণ খুশি হয়েছেন দেশের বেতনভোগী করদাতা সকলেই।

Income Tax New Rule Change.

মূলত দেশের সকল নাগরিককেই তাদের আয়ের (Income Tax) উপর আয়কর প্রদান করতে হয়। চলতি বছরে কেন্দ্রীয় সরকারের প্রত্যক্ষ কর আদায় বেশ ভালো হয়েছে। মূলত মাথা পিছু আয় ক্রমাগত বাড়ছে। আর তার ফলেই প্রত্যক্ষ কর আদায়ের হারও বেড়েছে। ২০২৩ থেকে ২০২৪ আর্থিক বছরে ১৭ ডিসেম্বর ২০২৩ পর্যন্ত প্রত্যক্ষ কর সংগ্রহের হার ১৭.০১ শতাংশ বৃদ্ধি পেয়েছে।

নেট প্রত্যক্ষ কর সংগ্রহের ক্ষেত্রেও ২০.৬৬ শতাংশ বৃদ্ধি পেয়েছে। খাদ্যপণ্যের মূল্যস্ফীতিও বেড়েছে। এমতাবস্থায় রিজার্ভ ব্যাংক অফ ইন্ডিয়া (RBI) আগামী মাসের জন্য সতর্ক করেছে। তাই গ্রোথ ভালো হলেও ৮ শতাংশের বেশি গ্রোথের জন্য করদাতাদের (Income Tax) হাতে আরও অর্থের প্রয়োজন অর্থাৎ ট্যাক্সের ক্ষেত্রে করদাতাদের কিছু ছাড় প্রয়োজন। সুত্রের খবর অনুযায়ী, সরকার করদাতাদের স্বস্তি দিয়ে স্ট্যান্ডার্ড ডিডাকশনের সীমা বাড়াতে পারে।

বর্তমানে স্ট্যান্ডার্ড ডিডাকশন ৫০০০০ টাকা। কর্মচারীদের সংগঠনগুলি তা বাড়িয়ে ১ লাখ টাকা করার দাবি জানিয়েছে। যাতায়াত, মুদ্রণ, স্টেশনারি, বই, কর্মীদের বেতন, যানবাহন পরিচালনা, রক্ষণাবেক্ষণ, মোবাইল খরচ ইত্যাদির কথা মাথায় রেখেই তাদের ভাতা বৃদ্ধি (Income Tax) করতে হবে। এই সমস্ত খরচ মেটানোর জন্য ৫০০০০ টাকার স্ট্যান্ডার্ড ডিডাকশন যথেষ্ট নয়।

Savings Account (সেভিংস একাউন্ট)

মুদ্রাস্ফীতি এবং ক্রমবর্ধমান জীবনযাত্রার পরিপ্রেক্ষিতে, স্ট্যান্ডার্ড ডিডাকশন বাড়িয়ে ১ লাখ টাকা করা উচিত। ASSOCHAM এর মতে, ৫০০০০ টাকা ছাড় বেতনভোগী শ্রেণীর জন্য একটি বড় স্বস্তি নয়। সমস্ত করদাতাদের বেতন সীমা এক নয়, তাই এই ছাড় বিপুল সংখ্যক করদাতার (Income Tax) জন্য পর্যাপ্ত নয়। ইনস্টিটিউট অফ চার্টার্ড অ্যাকাউন্ট্যান্টস দাবি করেছে যে।

মোদী সরকার নতুন প্রকল্প শুরু করলো। ভোটের আগে দারুণ চমক।

স্ট্যান্ডার্ড ডিডাকশন মূল্যস্ফীতি সূচক সমন্বয়ের উপর ভিত্তি করে হওয়া উচিত। তাই সবদিক বিবেচনা করে লোকসভা ভোটের আগেই কেন্দ্রীয় সরকার স্ট্যান্ডার্ড ডিডাকশন সীমা বাড়াতে পারে। মূলত দেশের বেতনভোগী এবং পেনশনভোগীদের (Income Tax) জন্য স্ট্যান্ডার্ড ডিডাকশন সীমা বাজেটে বর্তমান ৫০০০০ টাকা থেকে বাড়িয়ে ৭৫০০০ টাকা করা হতে পারে বলে মনে করা হচ্ছে।
Written by Sampriti Bose.

জনগনের সুবিধার্থে MyScheme Portal চালু করলো সরকার। কোন সরকারী প্রকল্পটি আপনার জন্য এক

Related Articles

One Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button