Is-this-possible-to-earn-money-through-YouTube-Find-out-details

আজকের যুগে বেশিরভাগ মানুষই সোশ্যাল মিডিয়ায় মজেছে। ফেসবুক, ইউটিউব, ট্যুইটার, ইনস্টাগ্রাম প্রভৃতি নানান সোশ্যাল মিডিয়া প্ল্যাটফর্মে প্রতিদিনই মানুষ অফুরন্ত সময় ব্যয় করেন। কিন্তু আপনি জানেন কী এই সোশ্যাল মিডিয়া থেকেই প্রচুর অর্থ ইনকাম করা যায়। বর্তমানে এমনিতেই চাকরি-বাকরির অবস্থা খারাপ। তাই প্রতিনিয়ত বিকল্প বহু পন্থার খোঁজ করে চলেছে যুবসমাজ। আর সেইসব পন্থার মধ্যে উল্লেখযোগ্য হলো- সোশ্যাল মিডিয়া থেকে অর্থ উপার্জন করা। তাই আজকের এই প্রতিবেদনে কীভাবে Youtube থেকে টাকা কামানো যায় সেই নিয়ে আলোচনা করা হলো। কীভাবে ইউটিউবে ভিডিও বানাবেন, কীভাবে ইউটিউব থেকে টাকা কামাতে পারবেন, বেশি টাকা কামানোর জন্য কোন কোন বিষয় মাথায় রাখতে হবে ইত্যাদি সমস্ত কিছু নিয়ে নীচে আলোচনা করা হলো।

• কীভাবে Youtube এ ভিডিও বানাবেন?
আজকাল এমনি যেকোনো ভিডিও বানানোই যথেষ্ট সহজ। স্মার্টফোনের মাধ্যমে সহজেই কোনো ভিডিও বানাতে পারবেন। তবে কীভাবে youtube এর ভিডিও বানাবেন তা নির্ভর করবে আপনার বিষয়ের ওপর। একেকরকম বিষয়ের ক্ষেত্রে ভিডিও বানাতে একেকরকম দিক মাথায় রাখতে হবে। যেমন:- শুরুতে কোনো Educational (শিক্ষামূলক) চ্যানেল খুললে আপনি খাতা বা বোর্ডে যেখানে বিষয়বস্তু বোঝাবেন সেখানে মোবাইল বা ক্যামেরা সেট করে সহজে ভিডিও বানাতে পারেন। আবার যদি আপনি কোনো টেকনিক্যাল কিংবা গেমিং চ্যানেল খোলেন তাহলে নিজের ডেস্কটপের স্ক্রিন রেকর্ডিং শেয়ার করে ভিডিও বানালে বেশি ভালো হয়। ভ্রমণ বিষয়ক vlog চ্যানেল খুললে ভালো কোয়ালিটির ক্যামেরা ব্যবহার করাই শ্রেয়। সেক্ষেত্রে উন্নত কোয়ালিটির ক্যামেরার মাধ্যমে আশেপাশের ছবি, ভিডিও তুললে তা বেশি সুস্পষ্ট ও সুন্দর হবে, যা নিঃসন্দেহে বেশি দর্শককে আকর্ষণ করবে। আবার ভিডিও বানানোর সময় স্পিকারের কথাও মাথায় রাখবেন। স্পিকার ভালো হলে আপনার কথা ভালোভাবে শোনা যাবে ফলে তা দর্শকদের বেশি ভালো লাগবে। এর পাশাপাশি ভিডিও এডিটিং,গ্রাফিক ডিসাইনিং এইসব কাজ পারলে ভিডিওটিকে আরও সুন্দরভাবে বানাতে পারবেন। এভাবে আপনি যে বিষয়ের ওপরে ভিডিও বানাবেন সেই বিষয়টি কীভাবে উপস্থাপন করবেন তা ভালো করে ভেবে নিয়ে Youtube ভিডিও বানানো শুরু করবেন।

বাড়িতে বসেই অর্ডার করুন PVC আধার কার্ড, আর পেয়ে যান ATM কার্ডর মতো আধার কার্ড

এ ছাড়া আপনি Youtube Shorts ভিডিও বানিয়েও টাকা কামাতে পারবেন। ছোটো কোনো মোটিভেশনাল উক্তি / খেলা / হাসির কিছু নিয়ে ভিডিও বানিয়ে তা youtube এ আপলোড করলে যদি ভাইরাল হয়ে যায় তাহলেও অনেক টাকা কামাতে পারবেন।

• কীভাবে Youtube থেকে টাকা কামাতে পারবেন?
ইউটিউবে আপনি বিভিন্ন অ্যাডের মাধ্যমে টাকা কামাতে পারবেন। আপনার কনটেন্ট ভালো হলে ইউটিউব আপনাআপনিই আপনার ভিডিওতে অ্যাড দিবে। কোনো দর্শক যখন আপনার সেই ভিডিওতে ক্লিক করবে তখন সে ওই অ্যাডটি দেখতে বাধ্য হবে। ৫ সেকেন্ডের স্কিপেবেল অ্যাডই এক্ষেত্রে বেস্ট। এই অ্যাড দেওয়ার জন্য আপনি ইউটিউব থেকে টাকা পাবেন। একেই ইউটিউনের ভাষায় বলা হয় অ্যাড রেভিনিউ।

এবারই অনেকের মনে প্রশ্ন জাগে, কতো টাকা কামানো যায় এই অ্যাড থেকে। এটি বিভিন্ন বিষয়ের ওপর নির্ভর করে। যদি আপনার ভিডিওটির দর্শক সংখ্যা বেশি হয়, তারা যদি বেশিক্ষন ধরে অ্যাড দেখে তাহলে আপনি বেশি টাকা কামাতে পারবেন। আপনার চ্যানেলে জনপ্রিয় কোনো কোম্পানি অ্যাড দিলে সেই অ্যাড থেকেও বেশি টাকা কামাতে পারবেন।

আবেদন করুন FAEA স্কলারশিপে এবং পেয়ে যান পড়াশোনার সমস্ত খরচ

• Youtube ভিডিও বানানোর সময় কোন জিনিসগুলো ভালো করে মাথায় রাখবেন?

(১) ইউটিউব ভিডিও বানানোর জন্য যেটি সবথেকে গুরুত্বপূর্ণ সেটি হলো Niche, আপনি কোনো বিষয়ের ওপর ভিডিও বানাতে চান সেটি সবথেকে গুরুত্বপূর্ণ। আপনার বিষয়টি যদি সাধারণ মানুষ বেশি সার্চ করে, সেই বিষয়ের ওপর যদি মানুষ বেশি ভিডিও দেখে তাহলে ওই ইউটিউব ভিডিওতে ভালো অ্যাড দেওয়া হবে যেটির ভালো মুনাফা আপনি পেয়ে যাবেন। মনে রাখবেন, অ্যাড দেখিয়ে যে টাকা লাভ করা যায় সেটির সবটা আপনাকে দেওয়া হয় না। অ্যাড রেভিনিউয়ের ৫৫% আপনাকে দেওয়া হয় এবং ৪৫% ইউটিউব নিজে নেয় যেটির ইউটিউবের নিজস্ব ইনকামের মূল উৎস বলা যেতে পারে।

(২) এছাড়া Watchtime বিষয়টিও মাথায় রাখবেন। Watchtime মানে হলো আপনার ভিডিও সকল দর্শক মিলিয়ে যতক্ষণ ধরে দেখা হয়েছে সেটি। ইউটিউব ভিডিওটি সবসময় আকর্ষণীয় এবং কৌতূহলপূর্বক বানানোর চেষ্টা করবেন তাহলে দর্শকরা আপনার ভিডিও বেশিক্ষন ধরে দেখবেন যা আপনার ইউটিউব ইনকামকে বহুগুন বাড়িয়ে দিতে সক্ষম হবে।

(৩) Youtube ভিডিও Title, Thumbnail ও tags সিলেক্ট করার বিষয়টিও যথেষ্ট গুরুত্বপূর্ণ। কোনো ইউটিউব ভিডিও বানালে সেটির হেডিং মানে টাইটেল কী হবে তা ভালোভাবে তৈরী করবেন। এরজন্য keyword বাছতে হবে। আপনি ইন্টারনেটে নানান ওয়েবসাইট থেকে কোন keyword এর সার্চ volume বেশি তা পেয়ে যাবেন। এভাবে যে keyword গুলোর সার্চ volume বেশি সেগুলো নিজের টাইটেল এবং ট্যাগস এ সিলেক্ট করবেন। Thumbnail মানে হলো youtube ভিডিও যখন ইউটিউবে দেখানো হয় তখন প্রথমে আপনি সেই ভিডিওর একটি ছবি প্রথমে দেখতে পান। সেই ছবিটি দেখে আকৃষ্ট হলেই আপনি ভিডিওটিতে ক্লিক করে সেটি দেখেন। অর্থাৎ বুঝতেই পারছেন thumbnail কতটা গুরুত্বপূর্ণ। সেইজন্য আপনি যেই ভিডিওটি youtube এ আপলোড করতে চাচ্ছেন সেটির thumbnail ভালোভাবে বানিয়ে ফেলবেন। সবকিছু ঠিকঠাক থাকলে ভিডিওটি ইউটিউবে আপলোড করে দেবেন।

এইসব বিষয় ভালোভাবে মাথায় রেখে youtube ভিডিও বানালে প্রচুর টাকা কামাতে পারবেন। যদিও কত টাকা কামাবেন এই বিষয়টি আপনার নিজের কনটেন্টের ওপর নির্ভর করবে। তবুও বলা যায় যে, যদি আপনার ইউটিউব চ্যানেলটি ভালোভাবে চলে তাহলে ১৫-২০ হাজার থেকে লক্ষাধিক টাকা ইনকাম করতে পারবেন।

এইরকম আরও নানান গুরুত্বপূর্ণ আপডেট পেতে আমাদের ওয়েবসাইটটি ফলো করুন এবং নীচের ডানদিকের টেলিগ্রাম আইকনে ক্লিক করে আজই জয়েন হোন আমাদের টেলিগ্রাম চ্যানেলে