Now-you-can-apply-for-voter-card-correction-2022-online-know-how-to-apply

সুখবর! এবার থেকে বাড়িতে বসেই অনলাইনে নিজের ভোটার কার্ডের ভুল সংশোধনের জন্য আবেদন করতে পারবেন। নতুন এই পদ্ধতি চালু হওয়ার ফলে অনেক মানুষ উপকৃত হবেন। কীভাবে এই ভোটার কার্ডের ভুল সংশোধনের (Voter Card Correction 2022) জন্য অনলাইনে আবেদন করতে হবে সে বিষয়েই আজকের প্রতিবেদনে ভালোভাবে আলোচনা করা হলো।

কীভাবে অনলাইনে ভোটার কার্ডের ভুল সংশোধনের জন্য আবেদন করবেন?

১. প্রথমে রাষ্ট্রীয় ভোটার পরিষেবা পোর্টাল তথা NVSP -এর অফিসিয়াল ওয়েবসাইট www.nvsp.in -এ যাবেন।
২. এবার সেই ওয়েবসাইটে Login/Register অপশনে ক্লিক করে লগ ইন করে নেবেন।
৩. যদি আপনি এর আগে কখনও এই ওয়েবসাইটে নিজের রেজিস্ট্রেশন করেননি তাহলে নীচের Don’t have an account. Register as a new user – এই লিংকে ক্লিক করবেন।
৪. তারপরে আপনার মোবাইল নম্বর এবং নীচে দেওয়া ক্যাপচা কোডটি হুবুহু লিখে Send OTP অপশনে ক্লিক করবেন।
৫. এবার আপনার মোবাইলে আসা ওটিপিটি লিখে Verify অপশনে ক্লিক করবেন এবং তারপরে নিজের নাম, ইমেল আইডি লিখে Password অপশনে একটি পাসওয়ার্ড তৈরী করে নেবেন এবং Register অপশনে ক্লিক করবেন।
৬. তাহলে NVSP পোর্টালে আপনার রেজিস্ট্রেশন সম্পন্ন হয়ে যাবে। এবার পুনরায় Login/Register অপশনে এসে নিজের মোবাইল নম্বর ও পাসওয়ার্ড দিয়ে Login -এ ক্লিক করবেন।
৭. তাহলে আপনার NVSP ওয়েবসাইটে লগ ইন করা সম্পন্ন হবে।
৮. লগ ইন করার পরে Application for Correction / Shifting / Duplicate EPIC and Marketing of PWD -এই অপশনটিতে ক্লিক করবেন।
৯. এবার স্ক্রিনে দুটি অপশন দেখতে পাবেন। যথা – ১) Self (নিজের জন্য) ও ২) Family (পরিবারের কোনো সদস্যের জন্য)। আপনি যার ভোটার কার্ড সংশোধন করবেন সেই হিসেবে দুটো অপশনের মধ্যে একটি সিলেক্ট করবেন এবং তারপরে Next অপশনে ক্লিক করবেন।
১০. তারপরে Correction of entries…. এই অপশনটি সিলেক্ট করবেন।
১১. এরপরে পেজটিকে নীচের দিকে স্ক্রল করবেন। তাহলে কিছু তথ্য অটোমেটিক ফিল আপ করা থাকবে। যে তথ্যগুলো অটোমেটিক ফিল আপ করা থাকবে না যেমন -আপনার জেলা, আধার কার্ড নম্বর , মোবাইল নম্বর ইত্যাদি তথ্যগুলো পূরণ করবেন।

বিদ্যাসারথী স্কলারশিপে আবেদন করুন এবং পেয়ে যান বছরে ৭০,০০০ টাকা অবধি

১২. তারপরে Please tick the entry which is to be corrected -এই লেখাটির নীচে আপনি নিজের নাম, জন্মতারিখ, ঠিকানা, মোবাইল নম্বর, অভিভাবক / আত্মীয়ের নাম, আপনার ছবি ইত্যাদি যা কিছু সংশোধন করতে চাইছেন সেই অপশনগুলো সিলেক্ট করবেন। উল্লেখ্য, আপনি একবারে সর্বোচ্চ চারটি অপশন সিলেক্ট করতে পারবেন। এর থেকে বেশী বিষয়ে সংশোধন একবারে করা সম্ভব নয়।
১৩. এবার আপনি যে অপশনগুলো সিলেক্ট করবেন নীচে সেই অপশনটির জায়গায় ইংরেজি ও আঞ্চলিক ভাষায় তা ভালোভাবে লিখবেন। লক্ষ্য রাখবেন সংশোধিত তথ্যে কোনো রকম ভুল যেন না থাকে।
১৪. সব তথ্য পূরণ হয়ে গেলে তার প্রমান হিসেবে সাপোর্টিং ডকুমেন্ট আপলোড করে দেবেন এবং নীচের দিকে আপনার স্থান (Place) ও ক্যাপচা কোডটি লিখে Preview অপশনে ক্লিক করবেন।
১৫. এবার আপনি এতক্ষন পর্যন্ত যা কিছু ফিল আপ করলেন তার একটি প্রিভিউ স্ক্রিনে দেখতে পাবেন এবং সবকিছু ঠিকঠাক থাকলে সবশেষে Submit অপশনে ক্লিক করবেন।

তাহলেই ভোটার কার্ডের ভুল সংশোধনের জন্য আপনার অনলাইন আবেদন সম্পন্ন হয়ে যাবে। এবার স্ক্রিনে একটি রেফারেন্স আইডি দেখতে পাবেন। সেটি ভালো করে নোট করে নেবেন। তারপরে পুনরায় একই ওয়েবসাইটের হোম পেজে এসে Track Application Status -এ ক্লিক করে উক্ত রেফারেন্স আইডি দিয়ে নিজের আবেদনের স্ট্যাটাসও চেক করতে পারবেন। কিছুদিন পরে স্ট্যাটাসে Approved দেখালে আপনি একই ওয়েবসাইট থেকে নিজের ভোটার কার্ডটি ডাউনলোড করে নিতে পারবেন।

অফিসিয়াল ওয়েবসাইট – Link

এই রকম আরও নানান গুরুত্বপূর্ণ খবর পেতে আমাদের ওয়েবসাইটটি ফলো করুন এবং নীচের ডানদিকের টেলিগ্রাম আইকনে ক্লিক করে আজই জয়েন হন আমাদের টেলিগ্রাম চ্যানেলে