Apply-to-National-Overseas-Scholarship-and-get-whole-expenses-of-study-at-foreign

আপনি কি বিদেশে গিয়ে উচ্চশিক্ষা লাভ করতে চান? তবে এই খবরটি আপনার জন্য। যে সকল শিক্ষার্থীরা বিদেশে গিয়ে উচ্চশিক্ষা লাভ করতে চান তাদের জন্য রয়েছে দারুণ এক সুখবর। ভারতের অনেক শিক্ষার্থীই বিদেশে গিয়ে উচ্চশিক্ষা লাভ করতে চান, কিন্তু পরিবারের আর্থিক অবস্থা তাদের শিক্ষা লাভের পথে অন্তরায় হয়ে দাঁড়ায়। এরূপ শিক্ষার্থীরা যাতে উচ্চশিক্ষা লাভ করে উজ্জ্বল ভবিষ্যতের পথে এগিয়ে যেতে পারে তার জন্য ভারত সরকারের সামাজিক ন্যায়বিচার ও ক্ষমতায়ন মন্ত্রকের পক্ষ থেকে এই সকল শিক্ষার্থীদের স্কলারশিপ দেওয়া হয়ে থাকে। এই স্কলারশিপটি ন্যাশনাল ওভারসিজ স্কলারশিপ নামে পরিচিত (National Overseas Scholarship)। আজ আমরা আলোচনা করতে চলেছি কারা এই স্কলারশিপের জন্য আবেদন করতে পারবেন, আবেদনের ক্ষেত্রে আবশ্যিক যোগ্যতা কি কি, কিভাবে আবেদন করবেন ইত্যাদি গুরুত্বপূর্ণ তথ্যগুলি।

মাসে মাত্র ৬০ টাকা দিয়ে এককালীন পান ৫০ হাজার টাকা, LIC এর এই পলিসি সমন্ধে আপনি জানেন কি?

চলুন তবে দেখে নেওয়া যাক, National Overseas Scholarship স্কলারশিপ এ আবেদনের ক্ষেত্রে শিক্ষার্থীদের আবশ্যিক যোগ্যতা কি কি:-
১. এই স্কলারশিপে আবেদনের ক্ষেত্রে শিক্ষার্থীকে অবশ্যই তপশিলি উপজাতি বা ST শ্রেণিভুক্ত হতে হবে, অন্যথায় শিক্ষার্থী এই স্কলারশিপের জন্য আবেদন করতে পারবেন না।
২. যে সকল শিক্ষার্থীরা স্নাতক স্তরের পরীক্ষা, স্নাতকোত্তর স্তরের পরীক্ষা কিংবা পিএইচডি পরীক্ষায় ৫৫ শতাংশ নম্বর নিয়ে উত্তীর্ণ হয়েছেন তারা এই স্কলারশিপের জন্য আবেদন করতে পারবেন।
৩. শিক্ষার্থীদের অবশ্যই বিদেশের স্বীকৃত শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে মাস্টার্স/পিএইচডি/পোস্টডক্টরাল পূর্ণকালীন কোর্সে ভর্তি হতে হবে।
৪. এই স্কলারশিপে আবেদনকারী শিক্ষার্থীর পরিবারের বাৎসরিক আয় অবশ্যই ৬ লক্ষ টাকার কম হতে হবে।
৫. স্কলারশিপে আবেদনকারী শিক্ষার্থীর বয়স অবশ্যই ৩৫ এর কম হতে হবে। বয়সের হিসাব ১লা জুলাই, ২০২২ তারিখ অনুযায়ী করা হবে।
৬. একটি পরিবার থেকে একজন শিক্ষার্থীই কেবলমাত্র এই স্কলারশিপের জন্য আবেদন করতে পারবেন।

• আর্থিক অনুদানের পরিমাণ:-
ন্যাশনাল ওভারসিজ স্কলারশিপে আপনার বিদেশে পড়াশোনার ক্ষেত্রে যে সকল খরচগুলি হবে সেগুলি খরচগুলি দেওয়া হবে। এর মধ্যে রয়েছে Annual maintenance Allowance, Contingency Allowance, Poll Tax, Incidental Journey and Equipment Allowance, Visa Fees, Tuition Fees, Medical Insurance Premium, Air Passage, Local Travel।

বিনিয়োগ করুন পোস্ট অফিসের এই স্কিমে এবং পেয়ে যান ৭ শতাংশ সুদ সহ নিশ্চিত রিটার্ন

• শিক্ষার্থীরা এই অনুদান বিভিন্ন কোর্সের ক্ষেত্রে বিভিন্ন সময়ের জন্য পাবেন, যথা:- পিএইচডি এর ক্ষেত্রে ৪ বছরের জন্য, মাস্টার্স ডিগ্রির ক্ষেত্রে ৩ বছরের জন্য।

• আবেদনের পদ্ধতি:-
এই স্কলারশিপের জন্য আবেদনের প্রক্রিয়া সম্পূর্ণভাবে অনলাইনে সম্পন্ন করতে হবে।
১. স্কলারশিপে আবেদনের জন্য প্রথমে আপনাকে https://overseas.tribal.gov.in/StudentsRegistrationForm.aspx ওয়েবসাইটে যেতে হবে।
২. এরপর এই ওয়েবসাইটের হোম পেজে সমস্ত প্রয়োজনে তথ্যাদি পরে নিয়ে একেবারে নিচের দিকে I have read and understood the guidelines/ instrunctions for registration অপশনে ক্লিক করতে হবে।
৩. এরপর আপনার সামনে ওই একই পেজের একেবারে নিচের দিকে Continue অপশনটি আসবে। ওই অপশনটিতে ক্লিক করুন।
৪. এরপর আপনার সামনে যে ওয়েব পেজটি আসবে তাতে আপনার সমস্ত তথ্য সঠিকভাবে পূরণ করে রেজিষ্টার করতে হবে।
৫. এরপর প্রয়োজনীয় সমস্ত নথিগুলি আপলোড করতে হবে।
৬. সমস্ত তথ্য সঠিকভাবে পূরণ করা হলে এবং সমস্ত নথি সঠিকভাবে আপলোড করা হলে সাবমিট অপশনে ক্লিক করলেই এই স্কলারশিপ এর জন্য আপনার আবেদনের প্রক্রিয়াটি সম্পন্ন হবে।

• আবেদনের ক্ষেত্রে প্রয়োজনীয় নথিগুলি:-
১. মাধ্যমিকের সার্টিফিকেট
২. জাতিগত শংসাপত্র
৩. আবেদনকারীর ফটো
৪. আবেদনকারীর স্বাক্ষর
৫. ঠিকানার প্রমাণপত্র
৬. পূর্ববর্তী কোর্সের সার্টিফিকেট
৭. পূর্ববর্তী কোর্সের মার্কশিট
৮. বিদেশে যে প্রতিষ্ঠানে ভর্তি হয়েছেন, সেই প্রতিষ্ঠানে ভর্তির সকল প্রমাণ।
৯. পরিবারের বাৎসরিক আয়ের সার্টিফিকেট

• আবেদনের শেষ তারিখ:-
এই স্কলারশিপে আবেদনের শেষ তারিখ ৩০ শে জুলাই, ২০২২

এইরকম আরও স্কলারশিপ সংক্রান্ত নানান গুরুত্বপূর্ণ আপডেট পেতে আমাদের পেজটি ফলো করুন এবং নীচের ডানদিকের আইকনে ক্লিক করে আজই যুক্ত হোন আমাদের টেলিগ্রাম চ্যানেলে