ব্যাংকিং

EMI কমতে চলেছে! RBI খুব শীঘ্রই গ্রাহকদের খুশির খবর দিতে পারে

দেশের অসংখ্য ঋণ গ্রহীতাদের জন্য এসে গেল বড়ো সুখবর। কমে যেতে চলেছে মাসে মাসে EMI এর ক্ষেত্রে খরচের পরিমাণ। অতি শীঘ্রই রিজার্ভ ব্যাংক অফ ইন্ডিয়ার (Reserve Bank of India) তরফে এমনই খবর ঘোষণা হতে চলেছে বলে জানা গিয়েছে (Repo Rate). বর্তমানে দেশে এমন বহু নাগরিক রয়েছেন যারা নিজেদের বাড়ি ঘর তৈরি করা, গাড়ি কেনা সহ বিভিন্ন কারণে ব্যাংক থেকে ঋণ (Bank Loan) নিয়ে থাকেন।

Bank Loan EMI will Reduce by RBI.

তবে এই ঋণ শোধ করতে গিয়ে গ্রাহকদের অনেক সময় নানাবিধ সমস্যার সম্মুখীন হতে হয়। সর্বোপরি মাসে মাসে যে ইএমআই (Equated Monthly Installment) দিতে হয়, সেই ইএমআই এর জন্য অনেক টাকা খরচ হয়ে যায় বলে অনেক সময় দাবি করে থাকেন গ্রাহকরা। তাই সকল গ্রাহকরাই সব সময় চান যাতে তাদের নেওয়া ঋণের উপর সুদের পরিমাণ কম হয় অর্থাৎ মাসে মাসে এর জন্য তাদের কম খরচ করতে হয় (EMI Calculator).

EMI এর খরচ কমাবে RBI!

তবে দীর্ঘদিন ধরে এই দাবি জানানো হলেও এই বিষয়ে কোনো ব্যবস্থা নেওয়া হয়নি এতদিন। তবে এবার ইএমআই এর খরচ কমতে চলেছে। শীঘ্রই এই বিষয়েই খুশির খবর পেতে পারেন ঋণ গ্রহীতারা। শুরু হয়েছে কেন্দ্রীয় ব্যাংক রিজার্ভ ব্যাংক অফ ইন্ডিয়ার মুদ্রানীতির বৈঠক। এই বৈঠক শেষেই আশা করা হচ্ছে লোনের উপর সুদের পরিমাণ অর্থাৎ ইএমআই কমতে পারে, কেননা রিজার্ভ ব্যাংক অফ ইন্ডিয়া রেপো রেটে (Repo Rate) বদল আনলেও আনতে পারে।

ইএমআই কি?

EMI বা Equated Monthly Installment হল এমন এক পদ্ধতি যার মাধ্যমে গ্রাহকরা একবারে টাকা খরচ না করে কোন জিনিস কিনে নিয়ে মাসে মাসে সেই টাকা শোধ করে এবং কোন ক্ষেত্রে এর জন্য সুদ (EMI Interest) দিতে হয় আবার কখনো কখনো এই পরিমাণ সুদ ছাড়াই পাওয়া যায়। আর EMI কম হওয়া মানে এই সুদের হার (EMI Interest Rate) কমে যাওয়া।

ইএমআই ক্যালকুলেটর

তবে দেখার বিষয় রিজার্ভ ব্যাংক অফ ইন্ডিয়া রেপো রেট কমানোর সিদ্ধান্ত নেয়, নাকি গত দেড় বছর ধরে যা চলছে সেটাই চালানোর সিদ্ধান্ত নেয়। রিজার্ভ ব্যাংক অফ ইন্ডিয়া রেপো রেট কমাতে পারে, এমনটাই আশা যোগাচ্ছে দেশের কোটি কোটি ঋণ গ্রহীতাদের। এর পিছনে বেশ কিছু কারণ রয়েছে আর সেই সকল কারণের মধ্যে অন্যতম হলো মে মাসে মুদ্রাস্ফীতির (Inflamation) পরিসংখ্যান অনেকটাই কম ছিল।

RBI রেপো রেট

এর পাশাপাশি ইউরোপীয় কেন্দ্রীয় ব্যাংক রেপো রেট কমানোর ঘোষণা করেছে। এর ফলে ভারতের কেন্দ্রীয় ব্যাংক, রিজার্ভ ব্যাংক অফ ইন্ডিয়াও রেপো রেট কমাতে পারে বলে আশা করা হচ্ছে। উল্লেখ্য, এর আগে রিজার্ভ ব্যাংক অফ ইন্ডিয়া ২০২৩ সালের ফেব্রুয়ারি মাসে রেপো রেট (RBI Repo Rate) বদল এনেছিল। সেই সময় মুদ্রাস্ফীতিতে লাগাম টানার জন্য রেপো রেট ০.২৫ শতাংশ বৃদ্ধি করা হয়েছিল।

Arogya Sanjeevani Policy (আরোগ্য সঞ্জীবনী পলিসি)

ক্রেডিট কার্ড ইএমআই

কিন্তু এরপর থেকে আর রেপো রেটের ক্ষেত্রে কোন বদল আনা হয়নি। দীর্ঘ দেড় বছরের কাছাকাছি সময় ধরে একই রকম রেপো রেট রাখা হয়েছে রিজার্ভ ব্যাংক অফ ইন্ডিয়ার তরফ থেকে। আর এর ফলেই দীর্ঘ দেড় বছর সময় ধরে ৬.৫০ রেপো রেট চলছে। আন্তর্জাতিক সংবাদ মাধ্যম সূত্রে জানা যাচ্ছে, ইসিবি ০.৬০ শতাংশ সুদের হার কমাতে পারে।

ব্যাংক একাউন্ট থেকে 436 টাকা কাটছে! কেন কাটা হচ্ছে?

অন্যদিকে আমেরিকার কেন্দ্রীয় ব্যাংকও মার্কিন ফেডারেল রিজার্ভ (Federal Reserve) ব্যাংক ০.২৫ শতাংশ সুদের হার কমানোর পথে হাঁটতে পারে। আর এই সকল বিদেশি দেশ গুলোর দিকে তাকিয়ে আশা রাখা হচ্ছে এবারের রিজার্ভ ব্যাংক অফ ইন্ডিয়ার মুদ্রানীতির বৈঠক শেষে রেপো রেট কমানোর সিদ্ধান্ত নিতে পারে কেন্দ্রীয় ব্যাংক (Central Bank). আর যদি তা সত্যিই বাস্তবায়িত হয় তাহলে অনেকটাই খরচ কমে যাবে ঋণ গ্রহীতাদের।
Written by Sampriti Bose.

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button