Vidyadhan-Scholarship-2022

আজকে আপনাদের সাথে আকর্ষণীয় একটি স্কলারশিপ সম্পর্কে আলোচনা করবো। স্কলারশিপটির নাম LIC HFL বিদ্যায়ন স্কলারশিপ। এই স্কলারশিপে আবেদন করে প্রতি বছরে সর্বোচ্চ ২০,০০০ টাকা অবধি পেতে পারেন। নীচে এই স্কলারশিপ সংক্রান্ত যাবতীয় খুঁটিনাটি সম্পর্কে আলোচনা করা হল।

LIC HFL বিদ্যায়ন স্কলারশিপ কী?

LIC HFL বিদ্যায়ন স্কলারশিপটি LIC Housing Finance Limited -এর তরফ থেকে দেওয়া হয়। একাদশ-দ্বাদশ শ্রেণী থেকে স্নাতকোত্তর স্তর পর্যন্ত এই স্কলারশিপ দেওয়া হয়। আর্থিকভাবে পিছিয়ে থাকা ছাত্রছাত্রীদের পড়াশোনায় সাহায্য করার উদ্দেশ্য এই স্কলারশিপ প্রদান করা হয়।

LIC HFL বিদ্যায়ন স্কলারশিপে কত টাকা করে দেওয়া হয়?

এই স্কলারশিপের মাধ্যমে একাদশ-দ্বাদশ শ্রেণীর ছাত্রছাত্রীদের বার্ষিক ১০,০০০ টাকা, স্নাতকস্তরের পড়ুয়াদের বছরে ১৫,০০০ টাকা এবং স্নাতকোত্তর স্তরের পড়ুয়াদের বার্ষিক ২০,০০০ টাকা করে দেওয়া হয়।

এবার বাড়িতে বসেই অর্ডার করতে পারবেন PVC আধার কার্ড, জেনে নিন পদ্ধতি

কারা LIC HFL বিদ্যায়ন স্কলারশিপের জন্য আবেদন করতে পারবেন?

১. ভারতবর্ষের যে কোনো স্বীকৃতিপ্রাপ্ত শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান থেকে পড়াশোনা করতে হবে।
২. একাদশ-দ্বাদশ শ্রেণী থেকে স্নাতকোত্তর স্তর পর্যন্ত পড়ুয়ারা এই স্কলারশিপের জন্য আবেদন করতে পারবেন।
৩. আগের পরীক্ষায় নূন্যতম ৬০% নম্বর পেতে হবে।
৪. আবেদনকারীর পরিবারের বার্ষিক আয় ৩ লক্ষ ৬০ হাজারের মধ্যে হতে হবে।
৫. যাদের পরিবার করোনা অতিমারীর সময় কোনো কারণে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে তাঁদেরকে এই স্কলারশিপ দেওয়ার ক্ষেত্রে অগ্রাধিকার দেওয়া হবে।

LIC HFL বিদ্যায়ন স্কলারশিপে আবেদনের জন্য কী কী লাগবে?

১. পরিচয়ের প্রমাণপত্র (Identity Proof)
২. আগের পরীক্ষার মার্কশীট
৩. ইনকাম সার্টিফিকেট
৪. বর্তমান শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে (স্কুল / কলেজ / ইউনিভার্সিটি ) ভর্তির রিসিপ্ট
৫. চলতি শিক্ষাবর্ষের ফি রিসিপ্ট
৬. আবেদনকারীর ব্যাংকের পাসবুকের প্রথম পাতার জেরক্স
৭. প্রতিবন্ধী ও কাস্ট সার্টিফিকেট (যদি থাকে)

ATM থেকে টাকা তুলতে গিয়ে টাকা আটকে গেছে অথচ ব্যাংক ব্যালেন্স কেটে নিয়েছে, এমন অবস্থায় কী করবেন

কীভাবে LIC HFL বিদ্যায়ন স্কলারশিপের জন্য আবেদন করবেন?

১. প্রথমে নীচের লিংকে ক্লিক করে আপনি যে শ্রেণী বা কোর্সের LIC HFL বিদ্যায়ন স্কলারশিপের জন্য আবেদন করতে চান সেটির Apply Now অপশনে ক্লিক করবেন।
২. তারপরে প্রয়োজনীয় সমস্ত তথ্যগুলো পূরণ করবেন এবং তার সাথে উপরোক্ত ডকুমেন্টগুলো আপলোড করে দেবেন।
৩. সবকিছু হয়ে গেলে পুনরায় নিজের ফর্মটি ভালো করে চেক করে নিয়ে Submit করে দেবেন।

আবেদন – লিংক

এই রকম আরও নানান গুরুত্বপূর্ণ খবর পেতে আমাদের ওয়েবসাইটটি ফলো করুন এবং নীচের ডানদিকের টেলিগ্রাম আইকনে ক্লিক করে আজই জয়েন হন আমাদের টেলিগ্রাম চ্যানেলে