Apply-to-Tata-Capital-Pankh-Scholarship-and-get-50000-rupees-per-year

ভারতের বিভিন্ন অঞ্চলের ছাত্রছাত্রীদের স্কুলছুটের প্রধান কারণ হয়ে দাঁড়ায় ছাত্রছাত্রীদের পরিবারের আর্থিক অবস্থা। অনেক শিক্ষার্থীই শুধুমাত্র আর্থিক সংগতির অভাবে উচ্চশিক্ষা লাভ করতে পারেন না। আর তাই সমাজের পিছিয়ে পড়া শ্রেণীর দরিদ্র ও মেধাবী ছাত্রছাত্রীদের আর্থিকভাবে স্বাবলম্বী করার জন্য টাটা ক্যাপিটাল লিমিটেড (Tata Capital Limited) এর তরফে টাটা ক্যাপিটাল পাঙ্খ স্কলারশিপ (Tata Capital Pankh Scholarship) প্রদান করা হয়ে থাকে।

এই স্কলারশিপটির অনুদানের জন্য ষষ্ঠ শ্রেণি থেকে স্নাতকস্তরে পাঠরত দরিদ্র ও মেধাবী শিক্ষার্থীরা আবেদন করতে পারবেন। আপনার ক্ষেত্রেও যদি আপনার অর্থনৈতিক অবস্থা আপনার উচ্চশিক্ষার পথে অন্তরায় হয়ে দাঁড়ায়, তবে আপনিও আবেদন করুন টাটা ক্যাপিটাল পাঙ্খ স্কলারশিপ (Tata Capital Pankh Scholarship) এর অনুদানের জন্য।

• চলুন তবে দেখে নেওয়া যাক, এই স্কলারশিপের জন্য আবশ্যিক যোগ্যতা কি কি:-
১. ভারত সরকার দ্বারা স্বীকৃত যে কোন স্কুল অথবা কলেজে পাঠরত ছাত্রছাত্রীরা এই স্কলারশিপের জন্য আবেদন করতে পারবেন।
২. স্কলারশিপের জন্য আবেদনকারী ছাত্র-ছাত্রীকে অবশ্যই ভারতীয় নাগরিক হতে হবে।
৩. ষষ্ঠ শ্রেণি থেকে দ্বাদশ শ্রেণী পর্যন্ত যেকোনো শ্রেণীতে পাঠরত শিক্ষার্থীরা ৬০ শতাংশ নম্বর নিয়ে পূর্ববর্তী পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হলেই এই স্কলারশিপের জন্য আবেদন করতে পারবেন।
৪. ইঞ্জিনিয়ারিং (Engineering), ডাক্তারি (Medical), আইন (Law) সহ বিভিন্ন প্রফেশনাল কোর্সে স্নাতক স্তরে পাঠরত ছাত্র-ছাত্রীরা উচ্চমাধ্যমিকে ৬০ শতাংশ নম্বর নিয়ে উত্তীর্ণ হলেই এই স্কলারশিপের জন্য আবেদন করতে পারবেন।

কারা পাবেন না পিএম কিষান প্রকল্পের ১২ তম কিস্তির টাকা, জেনে নিন পুরো খবর


৫. বি.কম (BCom), বিএসসি (BSc), বিবিএ (BBA), বিএ (BA), ডিপ্লোমা (diploma), পলিটেকনিক (polytechnic) ইত্যাদি বিভিন্ন কোর্সে স্নাতক স্তরে পাঠরত ছাত্র-ছাত্রীরা উচ্চমাধ্যমিকে ৬০ শতাংশ নম্বর নিয়ে উত্তীর্ণ হলেই এই স্কলারশিপের জন্য আবেদন করতে পারবেন।
৬. আবেদনকারী শিক্ষার্থীদের পরিবারের বাৎসরিক আয় ৪ লক্ষ টাকার কম হতে হবে।
৭. Tata Capital এবং Buddy4Study সংস্থায় কর্মরত ব্যক্তিদের সন্তানরা এই স্কলারশিপের জন্য আবেদন করতে পারবেন না।

• আর্থিক অনুদানের পরিমাণ:-
আবেদনকারী ছাত্রছাত্রীদের অনুদান প্রদানের ক্ষেত্রে টাটা ক্যাপিটালের তরফে তিনভাগে এই স্কলারশিপের অনুদান প্রদান করা হয়ে থাকে। যথা:-
১. The Tata Capital Pankh Scholarship Programme for Class 6 to 12 Students 2022-23
এই প্রোগ্রামের অন্তর্গত ষষ্ঠ শ্রেণি থেকে দ্বাদশ শ্রেণী পর্যন্ত যে কোন শ্রেণীতে পাঠরত ছাত্রছাত্রীদের ৮০ শতাংশ টিউশন ফি অর্থাৎ ১২,০০০ টাকা দেওয়া হয়ে থাকে।
২. The Tata Capital Pankh Scholarship Programme for Professional Undergraduate Courses 2022-23

প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনার আবেদন করুন এই পদ্ধতিতে এবং পেয়ে যান ১,৪০,০০০ টাকা


এই প্রোগ্রামের অন্তর্গত ইঞ্জনিয়ারিং (Engineering), ডাক্তারি (Medical), আইন (Law) সহ বিভিন্ন প্রফেশনাল কোর্সে স্নাতক স্তরে পাঠরত ছাত্র-ছাত্রীরা ৮০ শতাংশ টিউশন ফি অর্থাৎ ৫০,০০০ টাকা পেয়ে থাকেন।
৩. The Tata Capital Pankh Scholarship Programme for General Undergraduate Courses 2022-23
এই প্রোগ্রামের অন্তর্গত বি.কম (BCom), বিএসসি (BSc), বিবিএ (BBA), বিএ (BA), ডিপ্লোমা (diploma), পলিটেকনিক (polytechnic) ইত্যাদি বিভিন্ন কোর্সে স্নাতক স্তরে পাঠরত ছাত্র-ছাত্রীদের ৮০ শতাংশ টিউশন ফি অর্থাৎ ২০,০০০ টাকা দেওয়া হয়।

• আবেদন পদ্ধতি:-
১. প্রথমেই আপনাকে Buddy4Study এর অফিসিয়াল ওয়েবসাইট https://www.buddy4study.com/page/the-tata-capital-pankh-scholarship-programme এ যেতে হবে।
২. এরপর আপনার যে শ্রেণীতে পাঠরত তা অনুসারে আপনি টাটা স্কলারশিপের যে প্রোগ্রামের অন্তর্গত তাতে Apply Now অপশনে ক্লিক করুন।
৩. এরপর আপনার ফোন নম্বর/ইমেইল অ্যাড্রেস/ গুগল অ্যাকাউন্ট/ ফেসবুক আইডির মাধ্যমে লগ ইন অথবা রেজিষ্টার করতে হবে।
৪. এরপর আপনার সামনে যে ওয়েব পেজটি আসবে তাতে Start Application অপশনে ক্লিক করুন।
৫. এরপর আপনার সামনে টাটা স্কলারশিপের অনুদানের জন্য অনলাইনে আবেদনের ফর্মটি আসবে। সেটিতে আপনার সমস্ত তথ্যগুলি সঠিকভাবে পূরণ করতে হবে।
৬. তারপর ওই ফর্মে উল্লিখিত নথিগুলো আপলোড করুন।
৭. এরপর সমস্ত Terms and Conditions পড়ে নিয়ে Accept অপশনে ক্লিক করলেই আপনার সামনে ফর্মের একটি প্রিভিউ আসবে।
৮. সমস্ত তথ্য সঠিকভাবে পূরণ করা হলে এবং সমস্ত নথি সঠিকভাবে আপলোড করা হলে সাবমিট বাটনে ক্লিক করলেই আপনার আবেদনের পদ্ধতিটি সম্পূর্ণ হবে।

• আবেদনের ক্ষেত্রে প্রয়োজনীয় নথি:-
১. ফটো আইডেন্টিটি প্রুফ ( আধার কার্ড)
২. পাসপোর্ট সাইজের ফটো
৩. পরিবারের বাৎসরিক আয়ের সার্টিফিকেট
৪. নতুন কোর্সে অথবা শ্রেণীতে ভর্তির রশিদ
৫. আবেদনকারীর ব্যাংক অ্যাকাউন্টের ডিটেইলস্
৬. পূর্ববর্তী পরীক্ষার মার্কশিট
৭. জাতিগত শংসাপত্র
৮. বিশেষভাবে সক্ষম ব্যক্তিদের প্রতিবন্ধী সার্টিফিকেট ( Disability certificate)

• নির্বাচন পদ্ধতি:-
ছাত্রছাত্রীদের আবেদনপত্রগুলো তাদের নম্বর এবং পরিবারের বার্ষিক আয়ের নিরিখে বিচার করে ছাত্রছাত্রীদের একটি মেরিট লিস্ট তৈরি করা হবে Tata Capital এর তরফে। এরপর এই ছাত্রছাত্রীদের টেলিফোনের মাধ্যমে ইন্টারভিউ নেওয়া হবে। এরপর ফাইনাল ইন্টারভিউ নেওয়া হবে সিলেকশন কমিটির তরফে এবং যেসকল ছাত্রছাত্রীরা এই ইন্টারভিউয়ে উত্তীর্ণ হবেন তারা এই স্কলারশিপের অনুদান পাবেন। এক্ষেত্রে ৫০ শতাংশ সিট ছাত্রীদের জন্য বরাদ্দ করা থাকে।

• আবেদনের শেষ তারিখ:-
এই স্কলারশিপের অনুদানের জন্য ৩১ শে আগস্ট পর্যন্ত আবেদন করা যাবে।

এইরকম স্কলারশিপ সংক্রান্ত আরও নানান গুরুত্বপূর্ণ আপডেট পেতে আমাদের পেজটি ফলো করুন এবং নীচের ডানদিকের আইকনে ক্লিক করে আজই যুক্ত হন আমাদের টেলিগ্রাম চ্যানেলে