Trending News

Electric Bill : রাজ্যে বিদ্যুতের বিল বৃদ্ধি নিয়ে মুখ খুললেন মুখ্যমন্ত্রী। কি বললেন তিনি?

রাজ্যে বিদ্যুতের দাম বৃদ্ধির (Electric Bill Hike) কথা এবার স্বীকার করে নিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (CM Mamata Banerjee) তবে এরই সঙ্গে একটি সুখবরও দিলেন তিনি। বিগত কিছু দিন ধরে অর্থাৎ লোকসভা ভোটের আগে থেকে এই ধরণের অভিযোগ সারা রাজ্যে শোনা যাচ্ছিল। সদ্যই রাজ্যের প্রায় প্রতিটি বাড়িতে পৌঁছে গিয়েছে গরমের ইলেকট্রিক বিল (Electricity Bill) আর সেই বিল দেখে চোখ কপালে উঠেছে প্রায় সকলের।

CESC Electric Bill Hike News in West Bengal.

কারণ অন্যান্য বারের তুলনায় এবার অনেকটাই দাম বেড়ে গিয়েছে বিদ্যুতের (Electric Bill). আর এরপরেই রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্তে বিদ্যুতের দাম বৃদ্ধি পেয়েছে এমন অভিযোগ বারংবার তুলতে দেখা যাচ্ছে রাজ্যের সাধারণ বাসিন্দা থেকে শুরু করে বিরোধী রাজনৈতিক দল গুলির তরফ থেকে। কোথাও সরাসরি আবার কোথাও কৌশলে দাম বেড়েছে এমনই অভিযোগ উঠছে।

পশ্চিমবঙ্গে বিদ্যুতের দাম বৃদ্ধি

আর দাম বেড়েছে তা এবার খোদ স্বীকার করে নিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়, তবে এরই সঙ্গে সঙ্গে একটি সুখবরও দিলেন। চলতি বছর যখন তীব্র গরম এবং তাপ প্রবাহ রাজ্য জুড়ে থাবা বসিয়েছিল, তখন বিদ্যুতের ব্যবহার লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়তে শুরু করেছিল, ঠিক সেই সময় বিদ্যুৎ বিলের স্ল্যাব (Electric Bill Slab) বদল অথবা দাম বৃদ্ধি নিয়ে রাজ্যের মানুষদের মধ্যে ব্যাপক অসন্তোষ লক্ষ্য করা যায়।

কারেন্টের বিল নিয়ে মুখ্যমন্ত্রীর বক্তব্য

এবার এই বিষয়টি নিয়েই নবান্নে বৈঠকের সময় মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় মুখ খোলার পাশাপাশি বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী (Suvendu Adhikary), যে সকল অভিযোগ করছিলেন তার জবাব দিলেন। মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় নবান্নে বৈঠক করার সময় স্বীকার করে নিয়েছেন বিদ্যুতের দাম বৃদ্ধি (Electric Bill) পেয়েছে। তবে বিদ্যুতের দাম মূলত CESC এলাকাতেই বৃদ্ধি পেয়েছে বলেই তিনি দাবী করেছেন।

CESC বিদ্যুতের দাম বাড়িয়েছে!

মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় জানান, তাদের না জানিয়েই সিইএসসি বিদ্যুতের মাশুল কয়েক পয়সা বৃদ্ধি করেছে। এমনকি বিদ্যুৎ দপ্তরকেও এই বিষয়টি নিয়ে কিছু জানায়নি বলেও দাবি করেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। অন্যদিকে সিইএসসির বিদ্যুতের দাম বৃদ্ধি (Electric Bill) পাওয়ার বিষয়টি স্বীকার করে নিলেও মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দোপাধ্যায় দাবি করেছেন, WBSEDCL এক পয়সাও বিদ্যুতের দাম বাড়ায়নি।

বর্ষায় কারেন্ট নিয়ে সতর্ক থাকুন

রাজ্যের অধিকাংশ জায়গায় যেহেতু WBSEDCL বিদ্যুৎ পরিষেবা প্রদান করে থাকে তাই মুখ্যমন্ত্রীর এমন দাবির পরিপ্রেক্ষিতে স্বাভাবিকভাবেই রাজ্যের মানুষদের মধ্যে স্বস্তি ফিরেছে (WBSEDCL Electric Bill). অন্য দিকে এর পাশাপাশি মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সতর্ক করেছেন, বর্ষার সময় বিদ্যুতের শক যাতে না লাগে সেই বিষয়ে। বহু ক্ষেত্রেই দেখা গিয়েছে বিদ্যুতের বিভিন্ন সুইচ রয়েছে এমন বাক্স দিনের পর দিন রাস্তার ধারে খোলা অবস্থায় থাকতে।

Lakshmir Bhandar (লক্ষ্মীর ভাণ্ডার নতুন আবেদন)

এর পাশাপাশি বর্ষার সময় জমা জলের কারণে বহু জায়গায় বিদ্যুৎ শকের কারণে মৃত্যুর মতো ঘটনাও ঘটতে লক্ষ্য করা গিয়েছে। এই সবের পরিপ্রেক্ষিতে এবার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সতর্ক করে দিলেন (Electric Bill). আশা করা হচ্ছে মুখ্যমন্ত্রীর এমন সতর্কতার পরিপ্রেক্ষিতে বিদ্যুৎ দপ্তর সহ এই সকল দায়িত্বে যারা রয়েছেন তারা অনেকটাই সজাগ হবেন।

প্রতিমাসে 1500 টাকা দিচ্ছে পশ্চিমবঙ্গ সরকার! ডেকে ডেকে আবেদন নেওয়া হচ্ছে

এছাড়াও মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় জানিয়েছেন, যদি কোথাও জল জমে যায় তাহলে কিছুক্ষণের জন্য বিদ্যুৎ সংযোগ বন্ধ রাখতে এবং ছেঁড়া তার ইত্যাদির ক্ষেত্রে দ্রুত পদক্ষেপ গ্রহণ যেন করা হয়। মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের এই নির্দেশে প্রশাসন অনেকটাই সচেষ্ট হবে বলে মনে করা হচ্ছে। তাহলে এই Electric Bill বা কারেন্টের বিল বৃদ্ধি নিয়ে আপনাদের মত নিচে কমেন্ট করে জানাবেন।
Written by Sampriti Bose.

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button