Get-rs-60000-annually-from-Iswar-Chandra-Vidyasagar-Scholarship-2022-learn-the-application-details-today

আপনি কী ভালো কোনো স্কলারশিপে আবেদন করতে চাইছেন? তাহলে আজকের খবরটি আপনার অনেক কাজে লাগবে। আজ আপনাদের সাথে ঈশ্বরচন্দ্র বিদ্যাসাগর স্কলারশিপ (Iswar Chandra Vidyasagar Scholarship) নিয়ে আলোচনা করবো। শুধুমাত্র পশ্চিমবঙ্গের বাসিন্দারাই এই স্কলারশিপের জন্য আবেদন করতে পারবেন। নীচে এই স্কলারশিপ সংক্রান্ত যাবতীয় খুঁটিনাটি সম্পর্কে আলোচনা করা হলো।

ঈশ্বরচন্দ্র বিদ্যাসাগর স্কলারশিপ কী?

এই স্কলারশিপটি পশ্চিমবঙ্গের একটি প্রাইভেট সংস্থা পশ্চিম মেদিনীপুর ফিউচার কেয়ার সোসাইটির তরফ থেকে দেওয়া হয়। যে সকল মেধাবী ছাত্রছাত্রী অর্থের জন্য পড়াশোনা করতে পারছেন না তাঁদের সাহায্য করাই এই স্কলারশিপ প্রদানের মূল উদ্দেশ্য। এই স্কলারশিপের মাধ্যমে অষ্টম থেকে দ্বাদশ শ্রেণীর পড়ুয়াদের আর্থিক সাহায্য করা হয়।

ঈশ্বরচন্দ্র বিদ্যাসাগর স্কলারশিপের মাধ্যমে কত টাকা করে দেওয়া হয়?

অষ্টম শ্রেণী থেকে দ্বাদশ শ্রেণী পর্যন্ত ছাত্রছাত্রীদের এই স্কলারশিপ দেওয়া হয়। তবে এই স্কলারশিপের মাধ্যমে প্রতিটি ক্লাসের পড়ুয়াদের দেওয়া আর্থিক অনুদানের পরিমান আলাদা। কোন ক্লাসের পড়ুয়াদের বছরে কত টাকা করে দেওয়া হয় তা নীচে উল্লেখ করা হলো।

১. অষ্টম শ্রেণী – বার্ষিক ১,২০০ টাকা
২. নবম শ্রেণী – বার্ষিক ২,৪০০ টাকা
৩. দশম শ্রেণী – বার্ষিক ৩,৬০০ টাকা
৪. একাদশ শ্রেণী – বার্ষিক ৪,৮০০ টাকা
৫. দ্বাদশ শ্রেণী – বার্ষিক ৬,০০০ টাকা।

এবার ঘরে বসেই আবেদন করুন নতুন ATM কার্ডের জন্য

কারা ঈশ্বরচন্দ্র বিদ্যাসাগর স্কলারশিপের জন্য আবেদন করতে পারবেন?

১. পশ্চিমবঙ্গের স্থায়ী বাসিন্দা হতে হবে।
২. অষ্টম শ্রেণী থেকে দ্বাদশ শ্রেণী পর্যন্ত ছাত্রছাত্রীরা এই স্কলারশিপের জন্য আবেদনের যোগ্য।
৩. পরিবারের বার্ষিক আয় ২.৫ লক্ষ টাকার কম হতে হবে।

ঈশ্বরচন্দ্র বিদ্যাসাগর স্কলারশিপে আবেদন করতে কী কী লাগবে?

১. আবেদনকারীর পাসপোর্ট সাইজ রঙিন ছবি
২. আগের ক্লাসের মার্কশীট
৩. ছাত্রের বা অভিভাবকের আধার কার্ড
৪. ইনকাম সার্টিফিকেট
৫. ব্যাংকের পাসবুকের প্রথম পাতার জেরক্স

কীভাবে ঈশ্বরচন্দ্র বিদ্যাসাগর স্কলারশিপের জন্য আবেদন করবেন?
এই স্কলারশিপের জন্য অফলাইনে আবেদন করতে হবে। প্রথমে নীচের লিংকে ক্লিক করে এই স্কলারশিপের আবেদনপত্রটি প্রথমে ডাউনলোড ও পরে প্রিন্ট আউট করে নেবেন। এরপরে সেই ফর্মটি পূরণ করে তার সাথে উপরোক্ত ডকুমেন্টগুলো অ্যাটাচ করে তা একটি মুখবন্ধ খামে নিম্নলিখিত ঠিকানায় পাঠিয়ে দেবেন।

আবেদন করুন বিজ্ঞানী কন্যা মেধা বৃত্তি স্কলারশিপে এবং পেয়ে যান বছরে ৪৮,০০০ টাকা

আবেদনপত্র পাঠানোর ঠিকানা –

PASCHIM MEDINIPUR FUTURE CARE SOCIATY
Aligunj, Kellapukur
P.O:- Midnapore
PIN- 721101
Paschim Medinipur, West Bengal

আবেদনের সময়সীমা –

এই স্কলারশিপের জন্য আবেদন সাধারণত প্রতিবছর জানুয়ারি মাসের দিকে শুরু হয়।

আবেদনপত্র – লিংক

স্কলারশিপ সংক্রান্ত এই রকম আরও নানান গুরুত্বপূর্ণ খবর পেতে আমাদের ওয়েবসাইটটি ফলো করুন এবং নীচের ডানদিকের টেলিগ্রাম আইকনে ক্লিক করে আজই জয়েন হন আমাদের টেলিগ্রাম চ্যানেলে